bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Australia













ডঃ রেজাউল করিম ও তাঁর জনহিতকর উদ্যোগ!
আনিসুর রহমান

সিডনির এপিং নিবাসী ডঃ রেজাউল করিম এর সাথে আমার পরিচয় অনেক দিনের, ২০ বছরের বেশী হবে। সিডনি অনেক বড় শহর, অনেক বাঙালির বাস। সবারই মোটামুটি বন্ধুবান্ধব বা আত্মীয়-স্বজনের একটা নিজস্ব বলয় আছে। আমাদের বলয়টা আলাদা ছিল তাই পরিচয় থাকলেও আমরা খুব ঘনিষ্ঠ ছিলাম তা বলা যাবে না।

সম্প্রতি তিনি একটা ওয়েব সাইট খুলেছেন। সেই সূত্রে আলাপ করতে গিয়ে আবিষ্কার করলাম এক নতুন রেজাউল করিম সাহেবকে!একজন দেশ প্রেমিক, জনহিতৈষী রেজাউল করিমকে! কোন ঢাক-ঢোল না পিটিয়ে দেশে নিজ গ্রামে যেসব উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তিনি তা বলার জন্যই এই লেখা। তবে শুরুতে এই নম্র ভদ্র বিনয়ী মানুষটি সম্পর্কে দু’টি কথা বলে রাখি।

তাঁর জন্ম জামালপুর জেলার মেলান্দহ উপজেলায়, শ্যামপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে। বাবা মরহুম রশিদ মিঞা ব্রিটিশ ও পাকিস্তান আমলে ময়মনসিংহ জেলা বোর্ডের মেম্বার ছিলেন ১৫ বছর। ইউনিয়ন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ছিলেন একটানা ৩৬ বছর।

১৯৬৬ সালে BUET থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করে তুরস্কে যান বৃত্তি নিয়ে। Middle East Technical University, Ankara থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এ মাস্টার্স করেন। তুরস্কে থাকা কালীন সময়ে ১৯৭১ সালে আঙ্কারায় পাকিস্তান বিরোধী এবং বাংলাদেশ স্থাপনের পক্ষে আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। ১৯৭৮ সালে বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ PhD অর্জন করেন। তাঁর কর্মজীবন শুরু হয় তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে। পরে জার্মানি ও ইংল্যান্ডে কন্সাল্টিং ইঞ্জিনিয়ার এবং সিঙ্গাপুরে শিক্ষকতা করে ১৯৮৯ সালে অস্ট্রেলিয়ায় থিতু হন। অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেন ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি সিডনিতে (UTS). দীর্ঘ ২৮ বছর UTS এ অধ্যাপনার পর ডঃ করিম ২০১৬ সালে কর্ম জীবন থেকে অবসর গ্রহণ করেন।

ডক্টর করিমের স্বপ্ন ছিল অবসর গ্রহণের পর তাঁর জন্মস্থানে জনহিতকর প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলবেন। তিনি শিক্ষকতার পাশাপাশি ইঞ্জিনিয়ারিং কনসাল্টিং করেছেন এবং প্রায় ৩৫ বছর ধরে উপার্জিত অর্থ জমিয়েছেন। সেই অর্থে ২০১৯ - ২০২০ সালে তাঁর গ্রামের বাড়িতে দুই তলা বিশিষ্ট চমৎকার একটা বিল্ডিং তৈরি করেছেন। আর সেখানে তাঁর পরলোকগত বাবা, মা, ভাই ও বোনের স্মৃতির উদ্দেশ্যে গড়ে তুলেছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়, প্রাথমিক চিকিৎসালয়, কমিউনিটি ক্লিনিক, কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার, শিশু শিক্ষালয় এবং বয়স্ক মহিলাদের শিক্ষা কেন্দ্র। এ সবের জন্য এ পর্যন্ত তাঁর খরচ হয়েছে প্রায় চার কোটি টাকা। সমস্ত টাকাই ডক্টর করিম ও তাঁর স্ত্রী অস্ট্রেলিয়া থেকে পাঠিয়েছেন। মাতা-পিতার স্মৃতি কে ধরে রাখার জন্য এই বিল্ডিং এর নাম দিয়েছেন “Rabeya & Rashid Mia Complex” (রাবেয়া এবং রশিদ মিয়া কমপ্লেক্স)। এখানে একটি বহুমুখী হাই স্কুল স্থাপনের কাজ চলছে।


বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অবদান অনস্বীকার্য। যারা প্রবাসে থেকেও নিজের উপার্জিত অর্থ, শ্রম ও মেধা দিয়ে দেশকে ভালোবেসে দেশ ও দেশের মানুষের মঙ্গলের জন্য কাজ করেন ডঃ রেজাউল করিম তাদেরই একজন। আমি bangla-sydney.com এর পক্ষ থেকে ডঃ রেজাউল করিম এবং তাঁর স্ত্রী ডাঃ রাকিবা করিমকে জানাই আন্তরিক সাধুবাদ!


সস্ত্রীক ডঃ রেজাউল করিম


ডঃ রেজাউল করিম এর প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য এই ওয়েব সাইটটি ভিজিট করুনঃ https://rkarim.org




Click for details



Share on Facebook               Home Page             Published on: 4-May-2022

Coming Events:


আঙ্গিক থিয়েটার প্রযোজিত সিডনিতে প্রথমবার
লাইভ মিউজিক সহ যাত্রা-পালা