bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Sydney












এই লিংক থেকে SolaimanLipi ডাউনলোড করে নিন



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অস্ট্রেলিয়া সফর প্রসঙ্গে
কাউসার খান



অস্ট্রেলিয়ায় গ্লোবাল সামিট অব উইমেন ২০১৮ শীর্ষক এক সম্মেলনে যোগ দিতে আগামী ২৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সিডনি আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ২৬ এপ্রিল থেকে ২৮ এপ্রিল গ্লোবাল সামিট অব উইমেন সম্মেলনটি হওয়ার কথা রয়েছে। সম্মেলনে অন্যান্য রাষ্ট্রীয় প্রধানদের সাথে অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর একটি নিরাপত্তা দল সিডনিতে পৌঁছেছেন। সম্মেলন শেষে সিডনিতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে একটি নাগরিক সংবর্ধনা প্রদানের আয়োজন করা হয়েছে। সোফিটেল সিডনি ওয়েন্টওয়ার্থ হোটেল এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হবে।

নাগরিক সংবর্ধনা আয়োজন করার জন্য অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ সুফিউর রহমান একটি সাত সদস্য বিশিষ্ট পরিচালনা কমিটি গঠন করেছেন। কমিটিতে অস্ট্রেলিয়ার তিনটি আওয়ামীলীগ কমিটির একটি থেকে সভাপতি সিরাজুল হক ও সাধারণ সম্পাদক পি এস চুন্নু এবং অন্য দুটির একটি থেকে সভাপতি ড. শামস রহমান এবং আরেকটি থেকে সাধারণ সম্পাদক ড. আবুল হাসনাত মিল্টন স্থান পেয়েছেন। এ ছাড়াও রয়েছেন বঙ্গবন্ধু কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়ার সভাপতি শেখ শামিমূল হক যাকে নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি, কমিটিতে আরো রয়েছেন ডা. আয়াজ চৌধুরী এবং ড. মাসুদুল হক।

গতকাল, সোমবার (২৩ এপ্রিল) অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্র মুদ্রণের জন্য দেওয়া হয়েছে। আয়োজনের আনুমানিক খরচ ধরা হয়েছে ২১ হাজার অস্ট্রেলিয়ান ডলার যা আয়োজক কমিটির সাত সদস্যের কাছ থেকে সমান ভাগে নেওয়া হবে। হলের ভেতরে শৃংখলা রক্ষার জন্য বিশেষ নিরাপত্তাকর্মীর ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর অস্ট্রেলিয়া সফর প্রসঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের হাইকমিশনার এখনো গণমাধ্যমের মুখোমুখি হননি। তবে আশা করা হচ্ছে শীঘ্রই তিনি এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন।

অন্যদিকে, সম্মেলনের ২য় দিন (২৭ এপ্রিল) নারী নেতৃত্বে বিশেষ অবদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গ্লোবাল উইমেন্স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ছাড়া, ২৬ থেকে ২৮ এপ্রিলের কোন একদিন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এক বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এখনো অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তর এ ব্যাপারে কোন ঘোষণা দেয়নি।

প্রসঙ্গগত, গত ২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অস্ট্রেলিয়া সফর সুনিশ্চিত থাকার পরেও শেষ পর্যন্ত সে সফর বাতিল করা হয়।



কাউসার খান, সিডনি



Share on Facebook                         Home Page



                            Published on: 24-Apr-2018