bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Sydney












এই লিংক থেকে SolaimanLipi ডাউনলোড করে নিন



কাউসার খানের প্রতিবেদন
সাম্প্রতিক অস্ট্রেলিয়া (১৭)



অস্ট্রেলিয়ায় রাষ্ট্রীয় সম্মাননা পাচ্ছেন বাংলাদেশি কামরুল চৌধুরী

অস্ট্রেলিয়ার সরকার কর্তৃক ঘোষিত অস্ট্রেলিয়া ডে সম্মাননা ২০১৯ পেতে যাচ্ছেন দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশি ব্যবসায়ী কামরুল হোসাইন চৌধুরী। ২০১৯ সালের প্রকাশিত প্রথম তালিকায় তাঁর নাম ঘোষিত হয়েছে। আগামী জুন মাসের প্রথম সোমবার রানি এলিজাবেথের জন্মদিন উদযাপনের দিন এ সম্মাননা প্রদান করা হবে। দেশটির ভিক্টোরিয়া রাজ্যের রাজধানী মেলবোর্নের বাংলাদেশি কমিউনিটির সেবায় বিশেষ অবদান রাখার জন্য তাঁকে এই সম্মাননার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া ডে অ্যাওয়ার্ডের বিভিন্ন বিভাগের মেডেল অব দ্য অর্ডার অব অস্ট্রেলিয়া বিভাগে স্থান পেয়েছেন কামরুল চৌধুরী। গতকাল ২৬ জানুয়ারি দেশটির জাতীয় দিবস অস্ট্রেলিয়া ডে তে সম্মাননা প্রাপ্তদের নামের তালিকা প্রকাশ করা হয়। উইকিপিডিয়াতেও এ বছরে যারা সম্মাননা পাবেন তাঁদের নামের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। কামরুল চৌধুরী মেলবোর্নে বসবাসকারী একজন ব্যবসায়ী ও একজন মুক্তিযোদ্ধা।
অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সুশীল নাগরিকদের ভালো কাজের সাধুবাদ স্বরূপ প্রতিবছর অস্ট্রেলিয়া ডেতে এই সম্মাননার তালিকা প্রকাশ করা হয়। এই সম্মাননা রানির জন্মদিনের দিন প্রদান করার প্রচলন দেশটিতে রয়েছে ১৯৫৭ সাল থেকে। মেলবোর্ন থেকে মুঠোফোনে এই রাষ্ট্রীয় সম্মাননার কথা জানিয়ে কামরুল চৌধুরী বলেন, দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকে দেশের মানুষের জন্য নিজের যৎসামান্য সাধ্য থেকে কিছু করার চেষ্টা করে যাচ্ছি অনেক বছর ধরেই। কখনোই এর প্রতিদানই আশা করিনি। তবে এখন অস্ট্রেলিয়া ডে সম্মাননা পেতে চলেছি ভেবে খুশি লাগছে কেবল এ জন্যই যে, এর সঙ্গে আমার দেশের নাম জড়িয়ে আছে। দেশের নামে ভালো কিছু পাওয়াটাই একটা বড় পাওয়া।

এ দিকে একজন বাংলাদেশির রাষ্ট্রীয় সম্মাননায় আনন্দঘন পরিবেশ বিরাজ করছে গোটা দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশিদের মধ্যে। বিশেষত মেলবোর্নের বাংলাদেশি কমিউনিটির পক্ষ থেকে কামরুল চৌধুরীকে অভিনন্দন জানিয়ে বলা হয়, আমরা এখানকার বাংলাদেশিরা সত্যিই তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। তাঁর সহযোগী মনোভাবের কথা যেমন অনস্বীকার্য, তেমনই আমাদেরই একজন শ্রদ্ধাভাজন বাংলাদেশির এই অর্জনে আমরা গর্বিত।



নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্য নির্বাচন ২৩ মার্চ

অস্ট্রেলিয়ার ৪৬তম জাতীয় নির্বাচন আসন্ন। এরই মধ্যে দেশটির প্রায় সব রাজ্যেরই নির্বাচন শেষ হয়ে গেছে। বাকি আছে শুধু নিউ সাউথ ওয়েলস (NSW)। এটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য। আগামী ২৩ মার্চ এই রাজ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এটি ৫৭তম রাজ্য সংসদ নির্বাচন।
রাজ্য সংসদের নিম্ন-কক্ষের ৯৩টি এবং উচ্চ-কক্ষের ২১টি আসনের জন্য নির্বাচন হবে। রাজ্যটির বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী (প্রিমিয়ার) গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ান। তিনি দুই সরকারের অধীনে দুই মেয়াদে দীর্ঘ আট বছর ধরে মুখ্যমন্ত্রীসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। তৃতীয়বারের জয়ের জন্য গ্ল্যাডিস এবার লড়বেন বিরোধীদলীয় লেবার পার্টির নেতা মাইকেল ডেলির সঙ্গে। NSW রাজ্য সংসদ শেষ হওয়ার পরপরই দেশটির নতুন সরকার গঠনের জন্য নির্বাচন শুরু হবে। রাজ্য নির্বাচনকে সামনে রেখে তৎপর হয়ে উঠেছে দেশটির প্রধান দুই রাজনৈতিক দল লিবারেল ও লেবার পার্টি। সরকার দল লিবারেল পার্টির পূর্ণ সমর্থন পাচ্ছেন গ্ল্যাডিস। আগামী সপ্তাহ জুড়ে দেশের ট্রেড ইউনিয়নের সঙ্গে বৈঠক করতে শুরু করবে দলটি। রাজ্য নির্বাচনে দলকে অর্থ সহযোগিতা করতেই মূলত এই বৈঠক।

রাজ্য নির্বাচনী ক্যাম্পেইনে তৃতীয় পক্ষ কোনো দল ৫ লাখ থেকে ১০ লাখ অস্ট্রেলীয় ডলার খরচ করতে পারবে বলে উল্লেখ রয়েছে নির্বাচনী তহবিল আইনে। যদিও গত বছর সংশোধিত এই আইনের বিরুদ্ধে অনেকেই কথা বলেছেন। ২০১৫ সালের নির্বাচনে NSW রাজ্য নির্বাচনে তিনটি অন্যতম তৃতীয় পক্ষ খরচ করে প্রায় ৩০ লাখ ডলার।



অস্ট্রেলিয়ায় সরকারি খরচে স্নাতকোত্তর গ্রহণের সুযোগ

অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল সরকারের অনুদানে দেশটিতে স্নাতকোত্তর গ্রহণের দ্বার খুলেছে এ বছরও। দেশটির সবচেয়ে সম্মানজনক বৃত্তির কার্যক্রমে আবেদন করা যাবে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত। এই বৃত্তির জন্য বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরাও আবেদন করতে পারবেন। শুধু মাস্টার্স ডিগ্রি বা স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীরাই এ বৃত্তি পাবেন। এই বৃত্তির আওতায় শর্ত সাপেক্ষে পুরো টিউশন ফি বহন করবে সরকার। এ ছাড়া রয়েছে ফিরতি বিমান টিকিট, থাকা-খাওয়ার খরচ, বই ও পড়াশোনার অনুষঙ্গ কেনার খরচ, স্বাস্থ্য-বিমা, ইংরেজি ভাষা শিক্ষার খরচসহ আরও অনেক সুবিধা পাওয়ার সুযোগ।
বৃত্তি কার্যক্রমে আবেদনের জন্য বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের কয়েকটি আবশ্যিক শর্ত পূরণ করতে হবে। এর মধ্যে ইংরেজি ভাষা দক্ষতার প্রমাণ হিসেবে IELTS আইইএলটিএসের সমপরিমাণ কমপক্ষে ৬.৫ স্কোর থাকতে হবে, যার মধ্যে কোনো বিভাগের স্কোর ৬-এর নিচে হওয়া যাবে না। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তি কার্যক্রমে আবেদনের বিস্তারিত তথ্য নিচের ওয়েব ঠিকানায় পাওয়া যাবে। http://dfat.gov.au/about-us/publications/Documents/australia-awards-bangladesh-information-for-intake.pdf



অস্ট্রেলিয়ার বহু সংস্কৃতির উৎসবে বাংলাদেশ

অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী ক্যানবেরায় এ বছরও হতে যাচ্ছে রাজ্য সরকার কর্তৃক আয়োজিত জাতীয় বহু সংস্কৃতির উৎসব। এবারের আয়োজনে থাকছে বাংলাদেশের সক্রিয় অংশগ্রহণ। অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ হাই-কমিশন ও বাংলাদেশি কমিউনিটির যৌথ উদ্যোগে উৎসবে অংশগ্রহণ করছে বাংলাদেশ। ঐতিহ্যবাহী দেশি সংস্কৃতির নানা আয়োজন নিয়ে উৎসবে অংশগ্রহণ করবেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।
মূল উৎসবের দ্বিতীয় দিন ১৬ ফেব্রুয়ারি তিনটি বিভাগে চলবে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক প্রদর্শনী। দেশীয় নানান বৈচিত্র্যের দেখা মিলবে উৎসবে বাংলাদেশের স্টল নম্বর F4 ও F5 এ। দুপুর ১২টায় চালু হয়ে স্টল খোলা থাকবে রাত ১০টা পর্যন্ত। অন্যদিকে উৎসবের ৬ নম্বর স্টেজে বাংলাদেশি সংগীত, নৃত্য, কবিতা আবৃত্তিসহ আরও কলার প্রদর্শনী চলবে বিকেল ৪টা ৩০ মিনিট থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত। এ ছাড়া উৎসবের অন্যতম অংশ সাংস্কৃতিক প্যারেডে যোগ দেওয়ার সুযোগ থাকছে বিকেল ৪টায়।

প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি মাসে ক্যানবেরায় আয়োজিত জাতীয় বহু সংস্কৃতি উৎসব অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম বড় উৎসব। এই উৎসবে বহুজাতিক সংস্কৃতির দেখা মেলে। তিন দিনব্যাপী এই উৎসব ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে চলবে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। উৎসবে প্রায় ২ লাখ বিভিন্ন জাতির মানুষের আগমন ঘটে। উৎসবের সঙ্গে থাকে প্রায় ৩৫০টি কমিউনিটি ভিত্তিক দলের সক্রিয় অংশগ্রহণ। এ ছাড়া প্রায় ৭০টি কূটনৈতিক মিশন জড়িত থাকে এই উৎসবে। প্রায় ৩০০টি স্টলে পাওয়া যায় বিশ্বের প্রায় সব দেশের খাবার। সেই সঙ্গে ৬টি স্টেজে একের পর এক দেখা মেলে বিশ্বের বিভিন্ন সংস্কৃতির মিলন মেলা। মেলায় সপরিবার আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছে ক্যানবেরার বাংলাদেশ হাই-কমিশন।



কুইন্সল্যান্ডে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড রাজ্যে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে মুষলধারে বৃষ্টির অবসান ঘটায় ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হতে শুরু করেছে। আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা বন্যা কবলিত এলাকার অনেক বাসিন্দাই আজ বুধবার নিজেদের বাড়ি ফিরেছে। বন্যার পানিও ধীরে ধীরে কমে যাচ্ছে। তবে বন্যার ফলে রাজ্যের সাধারণ জনজীবন এখনো স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরেনি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বন্যায় দুই যুবকের মৃত্যুর ঘটনাও ঘটে ঘটেছে।

বন্যা কবলিত এলাকায় প্রায় সব গণ পরিবহন বন্ধ রয়েছে। সেই সঙ্গে প্রায় ৭ হাজার বাড়িতে বিদ্যুৎসংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এ বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ২০১৩ সালে দেশটির নিউ সাউথ ওয়েলস ও কুইন্সল্যান্ড রাজ্যে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড়ের ফলে হওয়া ক্ষয়ক্ষতির সমমানের ক্ষতি হয়েছে এবারের বন্যায়। ঘূর্ণিঝড়ে তখন প্রায় ১২৬ কোটি অস্ট্রেলীয় ডলারের ক্ষতি হয়। রাজ্যের সবচেয়ে বেশি বন্যার কবলে পড়া টাউনসভিল শহরে ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টির অনুপাত ছিল প্রায় ৫০৬ মিলিমিটার।

শহরের প্রায় ২০ হাজার বাড়িতে বন্যার পানি ঢুকে পড়ে। শহরের ঝুঁকিপূর্ণ ১ হাজার ঘরবাড়ি থেকে ৮ শর বেশি বাসিন্দাকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়। বিভিন্ন সাহায্যের জন্য জরুরি সেবায় আবেদন আসে ৯ হাজারেরও বেশি। এদিকে বন্যার পানিতে জনবসতিতে সাপ ও কুমির উঠে আসারও বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া ইনস্যুরেন্স কাউন্সিল অব অস্ট্রেলিয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিমা বাবদ ইতিমধ্যে প্রায় সাড়ে ৮ কোটি অস্ট্রেলীয় ডলার দাবি করেছে ৬ হাজারের বেশি গ্রাহক।
কুইন্সল্যান্ডে প্রতিবছরই বর্ষার মৌসুমে গড়ে প্রায় ২ হাজার মিলিমিটার বৃষ্টি হয়। তবে রাজ্যের বেশির ভাগ শহরেই বৃষ্টির পানি প্রবাহ করে দেওয়ার পদ্ধতি রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, গত ২০ বছরে এবারই সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে রাজ্যটিতে। বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় জরুরি সেবার পাশাপাশি অতিরিক্ত সেনা ও পুলিশ বাহিনীর সদস্য নিয়োগ করা হয়েছে। বন্যা পরিস্থিতি দেখতে গতকাল মঙ্গলবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন কুইন্সল্যান্ডে যান। সবাইকে সহযোগী মনোভাব নিয়ে একে অপরের সাহায্যে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানান তিনি। সরকার বন্যার ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে বলেও আশ্বস্ত করেন তিনি।




কাউসার খান: অভিবাসন আইনজীবী, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া। ইমেইল: immiconsultants@gmail.com



Share on Facebook               Home Page             Published on: 15-Feb-2019


Coming Events:





কলকাতার জনপ্রিয় ব্যান্ড চন্দ্রবিন্দু সিডনি আসছে। ১৯৮৯ সালে যাত্রা শুরু করে চন্দ্রবিন্দু। ব্যান্ডটি কথ্য ভাষায় বিদ্রুপাত্নক গানের কথার জন্য পরিচিত। এসব কথায় সাম্প্রতিক ঘটনা এবং সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলের সূত্র দেয়া থাকে। এছাড়াও নিজেদের লেখা ভিন্ন ধাঁচের গানও পরিবেশন করে থাকে চন্দ্রবিন্দু...বিস্তারিত...