bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Sydney












এই লিংক থেকে SolaimanLipi ডাউনলোড করে নিন



অস্ট্রেলিয়াতে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের
সদস্যপদ কার্যক্রম উদ্বোধন


সংবাদ বিজ্ঞপ্তি



প্রবাসী বাংলাদেশীদের ওয়েজ আর্নার্স ওয়েলফেয়ার বোর্ডের সদস্যপদ বিষয়ে ১৩ আগস্ট ২০১৭ তারিখে বাংলাদেশ হাইকমিশন, অস্ট্রেলিয়ার উদ্যোগে সিডনীতে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। স্থানীয় হোটেলে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মাননীয় মন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম, বিএসসি। অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যসহ নিহত সকল শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দুআ ও মোনাজাত করা হয় এবং তাঁদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

প্রধান অতিথি বাংলাদেশ সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম, বিএসসি তাঁর বক্তব্যে সভায় উপস্থিত সকল প্রবাসীদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রবাসীদের প্রেরিত রেমিটেন্স দেশের অর্থনীতির চাকাকে সচল রাখছে এবং দেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স প্রেরণে প্রবাসীদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে সরকার সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স প্রেরণকারীদের সিআইপি (বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি) মর্যাদায় সম্মানিত করছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

প্রবাসী বাংলাদেশীদের সম্বন্ধে সঠিক ও পূর্ণাঙ্গ তথ্য না থাকার ফলে অনেক সময় তাঁদের সরকার কর্তৃক গৃহীত কল্যাণমুখী সেবার আওতায় আনা সম্ভব হয় না। সকল শ্রেণীর প্রবাসী বাংলাদেশীদের ওয়েজ আর্নার্স ওয়েলফেয়ার বোর্ডের সদস্যপদ প্রদান তথা প্রবাসীদের তথ্যাদি ডাটা বেইজ-এ অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে তাঁর মন্ত্রণালয়ের গৃহীত সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করে মাননীয় মন্ত্রী বলেন, এর ফলে প্রবাসী সেবার পরিধি সম্প্রসারিত করা সম্ভব হবে এবং প্রবাসীগণ সরকারের সকল কল্যাণমুখী সেবা ও সুবিধাদি পাবেন। এ সকল সুবিধাদির মধ্যে অন্যতম হচ্ছে প্রবাসীর সন্তানদের শিক্ষা বৃত্তি; দেশে মৃতদেহ প্রেরণে ও বিপদগ্রস্ত প্রবাসীদের দেশে প্রত্যাবর্তনে সহায়তা; প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের মাধ্যমে সহজ শর্তে ঋণ গ্রহণ ইত্যাদি।

মাননীয় মন্ত্রী আরোও বলেন, প্রবাসীদের প্রয়োজন অনুযায়ী বিভিন্ন প্রকার ইনস্যুরেন্স প্রদানের বিষয়ে সরকার কাজ করছে। এছাড়া ঢাকাস্থ গুলশানের ভাটারায় ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের নিজস্ব জমিতে হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ কল্যাণমূলক নানা ধরণের প্রকল্প হাতে নেওয়া হচ্ছে, যেখানে প্রবাসীরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।



ইতোপূর্বে অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মান্যবর জনাব কাজী ইমতিয়াজ হোসেন তাঁর স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি উপস্থিত সুধীর প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন যে, প্রবাসী বাংলাদেশীরা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অংশগ্রহণের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের ভাবমূর্তি সমুজ্জলকরণ তথা দু দেশের মধ্যকার বন্ধুত্বপূর্ণ দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন ও সুসংহত-করণে বিশেষ ভূমিকা রাখছেন। এরই প্রেক্ষাপটে প্রবাসী কর্মীদের জন্য গৃহীত সরকারের বিভিন্ন কল্যাণমুখী কর্মসূচীর পরিধি সম্প্রসারিত করে সকল শ্রেণীর প্রবাসীদের এর আওতায় আনার সরকারি সিদ্ধান্তের কথা তিনি সভাকে অবহিত করেন। ওয়েজ আর্নার্স ওয়েলফেয়ার বোর্ড এর সদস্যপদ গ্রহণের মাধ্যমে এ সকল সুবিধা লাভ করা সম্ভব হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন এবং প্রবাসীদের সদস্যপদ গ্রহণের আহ্বান জানান।



অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে, মাননীয় মন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম বিএসসি প্রবাসীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় করেন এবং উপস্থিত সাংবাদিক ও সুধীবৃন্দের সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দেন। প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধি ও সাংবাদিকসহ প্রায় দেড় শতাধিক গণ্যমান্য প্রবাসী বাংলাদেশী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। উল্লেখ্য, অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী সিডনীতে বসবাস করেন। সে বিবেচনায় আয়োজনটি খুবই উপযোগী ও ফলপ্রসূ হয়েছে বলে প্রবাসীরা মত প্রকাশ করেন।

পরিশেষে সকলকে উক্ত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে অনুষ্ঠান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।



বাংলাদেশ হাইকমিশন, ক্যানবেরা, অস্ট্রেলিয়া



Share on Facebook                         Home Page



                            Published on: 17-Aug-2017