bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Australia













ম্যাসকটে গুড মর্নিং বাংলাদেশ অনুষ্ঠিত


প্রেস রিলিজঃ ২৯ মে রোববারের এক সুন্দর রোদেলা সকালে ম্যাসকট এর বাংলাদেশী কমিউনিটি, বিগেস্ট মর্নিং টি এর অংশ হিসেবে আয়োজন করেছিল এবারের গুড মর্নিং বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ার ক্যান্সার কাউন্সিলের জন্য তহবিল সংগ্রহের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশী পরিবাররা সকালের নাস্তার আয়োজন করেন প্রতি বছর। ২০০১ সালে প্রায়াত ড. আব্দুল হক এর উদ্যোগে ব্লাকটাউন থেকে শুরু হয় এই অনুষ্ঠান। এখন ম্যাসকট ও ল্যাকেম্বাবতেও অনুষ্ঠিত হচ্ছে গুড মর্নিং বাংলাদেশ।

কভিডের কারণে দুবছরের বিরতির পর ম্যাসকট এর এবারের আয়োজন ছিল পরবর্তী প্রজন্মের পদচারনায় মুখরিত। নতুন আঙ্গিকে স্টেজ, ভেনু, ব্যানার, পোস্টার সাজানো থেকে শুরু করে খাবারের মেনুতেও ছিল নতুনত্ব। অভির নেহারী এবং অরিনের সসেজ সিজল অন্যতম। পরোটা, পিঠা, মাংস, ভাজি, চটপটি, পিয়াজু, দইবড়া, ভাপা পিঠা ইত্যাদি তো ছিলই। একদম ছোটদের জন্য ইমরানের পেইনটিং এবং গেমসের আয়োজনটাও নতুন সংযোজন।

যে সমস্ত পরিবার রকমারি খাবার দাবার দিয়ে অনুষ্ঠান সাজিয়েছিলেন তাদের জন্য উপহার স্বরূপ ছিল গুড মর্নিং বাংলাদেশ ম্যাসকটে এর নিজস্ব ডিজাইনের চায়ের কাপ। সকাল ৯:৩০ মিনিট থেকে শুরু করে দুপুর সাড়ে বারোটা পর্যন্ত চলে এই ব্রেকফাস্ট অনুষ্ঠান। আমাদের শ্রদ্ধেয় বর্ষীয়ান, ব্যারিস্টার সালাউদ্দিন আহমেদের উদ্বোধনী বক্তৃতার পর অনুষ্ঠানের প্রধান আয়োজক আজাদ আলম উপস্থিত সবাইকে স্বাগত জানান।

উপস্থিত গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের মধ্যে ম্যাট থিসেলেথওয়েট (ফেডারেল এমপি), রন হনিগ এবং মাইকেল ডেলি (স্টেট এমপি) এবং বে-সাইড কাউন্সিলের ডঃ ক্রিস্টিনা কারি বক্তৃতায় অংশগ্রহণ করেন। সবার বক্তব্যে এই ভিন্ন-ধর্মী চ্যারিটেবল প্রোগামের আয়োজকদের বিশেষভাবে প্রশংসা করেন।

ম্যাসকট স্কুল ক্যাপ্টেন, ছোট্ট আরিয়ানের (বাংলাদেশী) সাবলীল বক্তব্যের সাথে ডোনেশনের জোড়ালো আবেদন ছিল হৃদয়-স্পর্শী। তার কথা শুনে মনে হচ্ছিল এই চ্যারিটি ইভেন্ট তার বহুদিনের চেনা।
তারুণ্যের ছোঁয়া দিয়ে যারা এ অনুষ্ঠান সাফল্যমণ্ডিত করেছে তাদের মধ্যে অরিন, অভি, রকি, রাফি, জুবায়ের, আবীর, সুমিত, ইমরান, সাবিহ, আমান, রাধীন, দেয়া, সুহান, সাজীদরা ছিল সামনের সাড়িতে।

বড়দের বিশাল নামের তালিকায় শুধু নেপথ্যে যারা কাজ করেছেন তাদের নামই উল্লেখ করছি - হালাল ব্রাদার্সের আব্দুল হালিম, এম এইচ হোমস এর মোঃ আল আমিন, ইস্টলেকস ভেজিটেবলস এর মোঃ আরিফ হোসেন এবং AOZ প্রিন্টার্সে এর শাহাবুদ্দীন আহমেদ এর স্পনসরের কারণে আয়োজকরা স্বস্তিতে অনুষ্ঠান সুসম্পন্ন করতে পেরেছেন।

এই অনুষ্ঠানে সংগৃহীত ডোনেশনের পরিমাণ ছিল দশ হাজার ডলারের বেশি যা অন্যান্য বছরের পরিমাণকে ছাড়িয়ে গেছে। এর সাথে আর একটা ব্রেকিং নিউজ সবাইকে খুশিতে আপ্লুত করে, তাহলো ২০০১ সাল থেকে এ পর্যন্ত গুড মর্নিং বাংলাদেশ অনুষ্ঠানের সংগ্রহীত অর্থের পরিমাণ ৩ লক্ষ ডলার ছাড়িয়ে গিয়েছে।

উপস্থিত সকলকে, বিশেষ করে প্রত্যক্ষভাবে খাবার তৈরিতে যারা জড়িত ছিলেন তাদের সবাইকে টি কাপ উপহার দিয়ে ধন্যবাদ জানান প্রধান আয়োজক জনাব আজাদ আলম। তিনি সকলকে ৫ই জুন ল্যাকেমবায় এবং ১২ই জুন ব্লাকটাউনে অনুষ্ঠিতব্য গুড মর্নিং বাংলাদেশ অনুষ্ঠানে আসার আমন্ত্রণ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।



ভিডিওঃ নাবিলা ইসলাম অরিন (গানঃ অনুপম রায়)





Click for details



Share on Facebook               Home Page             Published on: 3-Jun-2022

Coming Events:


আঙ্গিক থিয়েটার প্রযোজিত সিডনিতে প্রথমবার
লাইভ মিউজিক সহ যাত্রা-পালা