bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Sydney












এই লিংক থেকে SolaimanLipi ডাউনলোড করে নিন



The Prophet এর কবিকে
দিলরুবা শাহানা


প্রিয় জিবরান,
কি অবাক কাণ্ড! কি আশ্চর্য যোগাযোগ! ডিসেম্বরে হঠাৎ পুরনো এক বইয়ের দোকানে আপনার সাক্ষাৎ মিললো। সেদিন নীলাভ আকাশ গাঙ্গে সাদা মেঘের ভেলারা ভেসে বেড়াচ্ছিল, রোদে চারপাশ ঝকঝকে উজ্জ্বল তবে তাসমান সাগর থেকে ভেসে আসা বাতাস ছিল শীতার্ত।

আমরা হোবার্ট শহরে হারবারের সামনে দিয়ে যাচ্ছি তবে শীতল বাতাস স্বস্তি দিচ্ছিল না। তাই ডানপাশে সালামানকার পথ ধরলাম কফি-শপের উদ্দেশ্যে। ঠাণ্ডা থেকে বাঁচতে কফির উষ্ণ স্বাদ পাওয়া জরুরী । পুরনো বইয়ের দোকানে ঘুরা আমাদের নেশা। সালামানকার তেমনি এক দোকানে আমার স্বামী আপনাকে খুঁজে পেলেন। তাসমানিয়া বেড়াতে গিয়ে আমার জন্য সখ করে কেনা এটা সেটা উপহারের মাঝে সেরা উপহারটি হল সেই পুরনো বইয়ের মাঝ থেকে The Prophet কে খুঁজে এনে দেওয়া। আপনার এই বইটি ১৯২৩ সালে প্রথম প্রকাশ। ইংরেজি মুদ্রণ ১৯২৬ সালে। ঠিক সেই বইটির মতই আপনার নিজ হাতে আঁকা ছবিগুলোও রয়েছে এতে যা আগে দেখিনি। বইটি হাতে নিয়ে আমরা এবার হাঁটতে হাঁটতে নয় উড়তে উড়তে সুন্দর এক কফি-শপে পৌঁছে গেলাম।
সামনে টেবিলে ধূমায়িত কফির গন্ধে আমেজ ছড়ানো উষ্ণতা আর হাতে চিত্রময় দি প্রফেট। নতুন করে আবার পরিচয় শুরু হল চেনাজানা কবিতার সাথে। বই নিয়ে আলোচনা নয় এখানে।

তবে বই খুলতেই চোখে পড়লো
What of marriage master?
………………..let there be spaces in your togetherness. And let there be winds of the heavens dance between you.
আমাদের দুটি সত্তার ঐক্যের গভীরে বিভাজনের নয় নিঃশ্বাস প্রশ্বাসের যে নিজস্ব পরিসর ওই মুহূর্তে তাতে অমরাবতীর অতীন্দ্রিয় স্পন্দন তুলেছিল আপনার শব্দাবলী।

আর প্রার্থনা নিয়ে বয়ান পড়তে গিয়ে দেখি
“You pray in your distress and in your need; would that you might pray also in the fullness of your joy and in your days of abundance.”
শুনুন জিবরান, আপনাকে বলি তাহলে অতি সাধারণ, অতি সামান্য একজন আমি অন্য সবার মতই বিপন্ন সময়ে বিদীর্ণ হৃদয়ে প্রার্থনায় প্রশান্তি খুঁজে ফিরি, আর বিপদে মুহ্যমান যখন প্রার্থনায় করি শান্তির উপত্যকায় উত্তরণের প্রত্যাশা।

এটুকুই সব নয়। যখন অলৌকিক আনন্দ ধরা দেয় তখনও প্রার্থনায় নত হই। আমার কাছে অলৌকিক আনন্দ হচ্ছে যখন আপন চেষ্টায় ও যত্নে গাছে ফুল ফুটাতে পারি। জানি সবাই বলবে এ আর এমন কি কাজ? মালিইতো ফুল ফুটাতে পারে, চাষিই ফল-ফসল ফলাতে জানে। আমিও মানুষের তাচ্ছিল্যের স্বরে বলে যাওয়া এইসব কথাগুলো মানি। তবে আমি এর চেয়ে আরো একটু বেশী জানি যে মালির দক্ষতা আমার করায়ত্ত নয় আর কৃষকের জ্ঞানের কণামাত্রও ধারণ করার চেষ্টা করিনি কখনো।

ওই ফল-ফুল ফলানোর অদক্ষতা, অযোগ্যতা স্বত্বেও যখন আমারই চেষ্টায় বিকশিত ফুলের সম্ভাষণে আদৃত হই তখন বিনীত প্রার্থনায় দিই তার সম্ভাষণের জবাব।

আরো গল্প শুনাতে চাই আপনাকে বাংলাভাষী এক কবি বাংলায় লিখেছেন একটি কবিতার বই। এই ফেব্রুয়ারিতেই প্রকাশ হয়েছে বইটি। কাব্যগ্রন্থ নিয়ে অনেক কথা, অনেক খবর পত্রিকার পাতাতে। এক পত্রিকা ওই বই থেকে একটি কবিতা প্রকাশ করেছিল। সেই কবিতায় কবি খলিল জিবরানকে উল্লেখ করেছেন। আমি যখন দি প্রফেট নিয়ে মগ্ন ঠিক তখনি দেখি কবি গুলতেকিন খান দি প্রফেট এর কবি জিবরানকে আসন দিয়েছেন তাঁর কবিতায়। কবিতার যাদু হচ্ছে অর্ধেক সে বলে আর না-বলা বাকী অর্ধেক বুঝে নেওয়ার অপেক্ষায় থাকে।

কবির রহস্য সব বোঝা ভারী দায় তবুও মানুষ অবিরাম চেষ্টা চালিয়ে যায়।
কবিতার জিবরান আপনার রহস্য অফুরান। ভাল থাকুক সব কবি ও কবিতার রহস্যেরা।



দিলরুবা শাহানা, মেলবোর্ন



Share on Facebook                         Home Page



                            Published on: 15-Mar-2016