bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Sydney












এই লিংক থেকে SolaimanLipi ডাউনলোড করে নিন



ড. আব্দুল হকের মৃত্যু এবং কিছু প্রশ্ন
আনিসুর রহমান



ড. আব্দুল হকের বাড়িতে গিয়েছিলাম তিনি এ দেশে আসার আগেই। তার ছোট ভাই আলম তখন এদেশে ছাত্র। হক ভাই তখন সৌদি আরবে। হ্যাসেলগ্রোভের বাড়িটি কিনে রেখে গেছেন কিন্তু তখনো স্থায়ী ভাবে থাকার জন্য আসেননি। সেটা ১৯৮৯ সালের কথা। ওয়েস্ট রাইডে এক বন্ধুর বাসায় আলম এর সাথে পরিচয়। সে প্রায় জোর করে আমাদের নিয়ে গেল হক ভাইয়ের বাসায়। সে আজ নর্থ ইন্ডিয়ান ফুড রান্না করবে সেটা আমাদের খেয়ে মন্তব্য করতে হবে কেমন হয়েছে। হক ভাইয়ের বাসায় গিয়ে, তার গল্প শুনে, তার ছোট ভাইয়ের প্রাণ-শক্তি আর আতিথেয়তা দেখে অদেখা হক ভাই সম্পর্কে একটা ধারনা জন্মেছিল মনে। bangla-sydney.com করার সুবাদে দীর্ঘদিন তার সাথে নানা কারণে নিয়মিত যোগাযোগ হয়েছে আমার। বাস্তবের হক ভাই কল্পনার হক ভাইকে ছাড়িয়ে গেছেন বহুগুণে!

সমাজের জন্য এমন নিঃস্বার্থ নিবেদিত-প্রাণ মানুষ আমি আর দেখিনি কখনো! ব্লাকটাউন সিটি ফেস্টিভ্যালে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের নিয়ে অনুষ্ঠান করা, মেধাবী ছেলে-মেয়েদের উৎসাহ দেবার জন্য ট্যালেন্ট ডে'র আয়োজন করা, কমিউনিটির মধ্যে মেলবন্ধন তৈরি করার জন্য ফ্রেন্ডশিপ ডে উদযাপন করা, ওয়েস্টমিড শিশু হাসপাতালের জন্য অর্থ সংগ্রহ করা, যারা আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন তাদের জন্য স্মরণ সভা করা, ক্যান্সার কাউন্সিলের জন্য সকালের নাস্তার আয়োজন করে অর্থ সংগ্রহ করা, বাংলাদেশে ক্যান্সার হাসপাতালের সাহায্যার্থে ডিনারের আয়োজন করা, কোয়েকার্স হিল মসজিদ, রিভারস্টোন গোরস্তান, এক জীবনে কি করেন নি তিনি!

অথচ এই মানুষটি যে ভাবে চলে গেলেন তা কিছুতেই মেনে নিতে পারছি না। আমি ডাক্তার নই কিন্তু তার মৃত্যুর বর্ণনা শুনে আমি নিশ্চিত হক ভাইয়ের যা হয়েছিল তার ডাক্তারি নাম Abdominal Aeortic Aneurysm. আমাদের শরীরের প্রধান রক্তনালী (Aeorta) ভেতর থেকে কোনো কারণে ক্ষয়ে পাতলা হয়ে গেলে তা বেলুনের মত ফুলে ওঠে এবং এক সময় ফেটে গিয়ে প্রবল রক্তক্ষরণে মানুষ মারা যায়। ভেতরে টিউব বসিয়ে এই দুর্বল যায়গাটা সহজেই মেরামত করা যায়। বেশ কয়েক ঘণ্টা হাসপাতালের ওয়েটিং রুমে বসে থেকেও এই সেবা পান নি ড. হক। প্রধান রক্তনালী ফেটে যাবার তীব্র ব্যথা নিয়ে ঢলে পড়েছেন মৃত্যুর কোলে। আমরা সবাই একদিন চলে যাবো। সেটা মেনে নিয়েই পৃথিবীতে আসা কিন্তু কর্তব্যে এমন চরম অবহেলা মেনে নেই কিভাবে? অনেক ক্ষেত্রেই Aneurysm এর কোন লক্ষণ থাকে না। কিন্তু হক ভাইয়ের ক্ষেত্রে ছিলো। তাই তিনি হাসপাতালে পর্যন্ত গিয়েছিলেন। বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে গেলে বেশ দ্রুত সেবা পাওয়া যায় কিন্তু শুধু হার্টই কি মানুষের আকস্মিক মৃত্যুর একমাত্র কারণ? পেট ব্যথা হলেই কি তাকে "ও কিছু না" বলে উড়িয়ে দেয়া যায়? তাহলে মেধাবী চিকিৎসক আর আমার মত অ-চিকিৎসকের মধ্যে পার্থক্য থাকলো কোথায়?

হক ভাই, সেদিন ল্যাকেম্বার গ্রীক ক্লাবে আমরা অনেকেই সমবেত হয়ে আপনাকে স্মরণ করেছি। আপনার সৃষ্ট Good Morning Bangladesh নিয়ে করা আমার একটা ভিডিও সেখানে দেখানো হয়েছে। এই ভিডিওটা নিয়ে আপনার সাথে আমার অনেক কথা হয়েছে। সেদিন ভাবিনি এটাই হবে আপনার জন্য আমার শেষ শ্রদ্ধাঞ্জলি। সবার মুখে মুখে যখন Good Morning Bangladesh কথাটা ধ্বনিত হচ্ছিল হঠাৎ মনে হলো আপনার বুকে মানব সেবার যে উজ্জ্বল শিখাটি দিন-রাত জ্বলতো তা যেন আজ সবার বুকে একে একে জ্বলে উঠছে। এই শিখাটিকে জ্বালিয়ে রাখার দায়িত্ব এখন তাদের। নশ্বর পৃথিবী ছেড়ে আপনি যে অনন্তের পথে যাত্রা করেছেন, স্রষ্টার নৈকট্যে আপনার সেই পথ হোক শান্তিময়।

সমুখে শান্তির পারাবার ভাসাও তরণী হে কর্ণধার



আনিসুর রহমান, সিডনি



Share on Facebook                         Home Page



                            Published on: 28-Oct-2016