bangla-sydney
bangla-sydney.com
News and views of Bangladeshi community in Australia












এই লিংক থেকে SolaimanLipi ডাউনলোড করে নিন



ক্যালেন্ডার
ইংরেজি, রোমান না মিশরিয়?

আনিসুর রহমান


দেখতে দেখতে শেষ হয়ে গেল আরেকটি বছর। বিদায় ২০১৫। স্বাগতম ২০১৬। সকলকে জানাই ইংরেজি নব-বর্ষের শুভেচ্ছা। তবে আমরা যেটাকে ইংরেজি ক্যালেন্ডার বলে জানি সেটা কিন্তু মোটেই ইংরেজদের তৈরি নয়। এই ক্যালেন্ডারের যাত্রা শুরু হয়েছিলো এখন থেকে প্রায় ৫০০০ বছর আগে - প্রাচীন মিশরে। তাদের ক্যালেন্ডারে ছিল ৩টি মৌসুম। নীল নদের পানি বৃদ্ধির মৌসুম, তারপর পানি সরে গেলে পড়ে থাকা উর্বর পলি মাটিতে ফসল বপনের মৌসুম, এবং শেষে - স্বাভাবিক ভাবেই ফসল কাটার মৌসুম। মিশরীয়রাই প্রথম লক্ষ্য করেছিল মোটামুটি ভাবে ৩৬৫ দিন পর পর নীল নদের পানি বাড়তে শুরু করে। সেই থেকে ৩৬৫ দিনে এক বছর। অনেক পরে বিজ্ঞানীরা পরিমাপ করেছেন বছরের সঠিক দৈর্ঘ্য। সূর্যের চারিদিকে একবার ঘুরে আসতে পৃথিবীর সময় লাগে - ৩৬৫ দিন ৫ ঘণ্টা, ৪৮ মিনিট, ৪৭ সেকেন্ড। হাজার হাজার বছর আগে মিশরীয়দের ৩৬৫ দিনের হিসাব ছিল বিস্ময়কর ভাবে সঠিক!

খৃষ্টপূর্ব ৪৭ সালে রোম সম্রাট জুলিয়াস সিজার মিশর জয় করেন। তিনি মিশর থেকে কিছু জ্যোতিষবিদ রোমে নিয়ে আসেন। কৃষি কাজের জন্য সে সময়ের রোমান ক্যালেন্ডারে মাসের সংখ্যা ছিল
১০ টি। ১০ মাসে বছর এর প্রমাণ আমরা এখনো দেখতে পাই বছরের শেষ মাস ডিসেম্বর মাসের নামটিতে। ডিসেম্বর এসেছে ডেসি থকে যার মানে ১০। প্রবল শীতে ইউরোপে চাষাবাদ বন্ধ থাকতো বলে শীতের দুমাস রোমান ক্যালেন্ডারে ছিল না। বসন্ত কালের শুরুতে শুক্লপক্ষের প্রথম চাঁদ দেখা দিলেই আবার মাস গণনা শুরু হতো। নব-বর্ষ ও উদযাপিত হত তখন, অর্থাৎ এখনকার হিসেবে মার্চ মাসে।

মিশরীয় জ্যোতিষবিদের সহায়তায় জুলিয়াস সিজার ১২ মাসের ক্যালেন্ডার চালু করেন। সেই থেকে পরবর্তী ১৫০০ বছর এটা জুলিয়ান ক্যালেন্ডার নামে পরিচিত ছিল। জুলিয়ান ক্যালেন্ডারে হিসাবের ভুল বশত লিপ ইয়ার ধরা হতো ৩ বছর পর পর। প্রয়োজনের চেয়ে বেশী লিপ ইয়ার ধরার ফলে জুলিয়ান ক্যালেন্ডার রিতুর সাথে তাল মিলিয়ে চলতে পারেনি। ১৫০০ বছরে মাস এবং রিতু মধ্যে পার্থক্য সৃষ্টি হয়েছিল প্রায় ৪ মাস। ডিসেম্বর মাসে শীত না পড়ে দেখা যেত শীত পড়ছে এপ্রিল মাসে।

পোপ ত্রৈয়দশ গ্রেগরি রোমে বসেই ১৫৮২ সালে জুলিয়ান ক্যালেন্ডার সংস্কার করেন। তার নিয়ম অনুযায়ী যে সালগুলিকে ৪ দিয়ে ভাগ করলে মেলে সেই বছরগুলির ফেব্রুয়ারি মাসে ২৯ দিন ধরতে হবে। এ নিয়মের মধ্যে তিনি একটি ব্যতিক্রম যুক্ত করেন। শতাব্দীগুলিকে লিপইয়ার ধরতে হবে ৪০০ বছর পর পর। এ ক্ষেত্রে ৪ নয় যে শতাব্দীগুলি ৪০০ দিয়ে ভাগ করলে মেলে শুধু সেগুলোকে লিপইয়ার ধরতে হবে। এ কারণেই ১৮০০ এবং ১৯০০ সালগুলি ৪ দিয়ে ভাগ করলে মিললেও সেগুলি লিপইয়ার নয় কিন্তু ২০০০ সালকে লিপইয়ার ধরা হয়েছে। সংস্কারের পর থেকে এর নাম হয় গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার যা এখন পৃথিবীর সব দেশ অনুসরণ করে থাকে। এই ক্যালেন্ডারটি ইংরেজরা আমাদের দেশে নিয়ে এসেছিল বলে আমরা এখনো একে ইংলিশ ক্যালেন্ডার বলে চিনি যা মোটেই সঠিক নয়।

গ্রেগরির সংস্কারে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো তিনিই নব-বর্ষ উদযাপন বসন্ত কাল অর্থাৎ মার্চ মাস থেকে সরিয়ে ১লা জানুয়ারি নিয়ে আসেন - যা আমরা মাত্র কয়েকদিন আগে উদযাপন করলাম।



আনিসুর রহমান, সিডনি



Click for details



Share on Facebook               Home Page             Published on: 4-Jan-2016

Coming Events: